জানমালের নিরাপত্তা দিতে এ সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ : খালেদা জিয়া

|| প্রকাশ: ২০১৫-১১-০১ ১২:৪১:১৭ || আপডেট: ২০১৫-১১-০১ ১২:৪১:১৭

khaleda-ziaজাগৃতি প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী ফয়সাল আরেফিন দীপনকে তার কার্যালয়ে কুপিয়ে হত্যা এবং আরেকটি প্রকাশনী সংস্থা শুদ্ধস্বরের কার্যালয়ে ঢুকে প্রতিষ্ঠানটির কর্ণধার আহমেদুর রশীদ টুটুলসহ তিনজনকে কুপিয়ে গতকাল দুপুরে আহত করার ঘটনায় বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়া গভীর উদ্বেগ ও শোক প্রকাশ করে ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।

গতকাল রাতে দলের মুখপাত্র ড. আসাদুজ্জামান রিপন স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ উদ্বেগ ও নিন্দা জানান বেগম খালেদা জিয়া।

তিনি এ ধরনের কাপুরুষোচিত হত্যা ও হামলার ঘটনায় দোষীদের অবিলম্বে গ্রেফতার ও আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।

বিএনপি চেয়ারপারসন নিহত ফয়সাল আরেফিনের রূহের মাগফিরাত কামনা করেন এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানিয়ে বলেন, নিহত ফয়সাল আরেফিন দীপন জিয়া স্মৃতি পাঠাগারের সহসভাপতি ছিলেন। একই সাথে শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের আদর্শে উজ্জীবিত একজন নিবেদিত সংগঠক ছিলেন।

বিএনপি চেয়ারপারসন বলেন, মানুষের জানমালের নিরাপত্তা দিতে এ সরকার সম্পূর্ণ ব্যর্থ হয়েছে। দেশের অবনতিশীল আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতিতে তিনি গভীর শঙ্কা প্রকাশ করে বলেন, দেশে আইনের শাসনের অনুপস্থিতিতে সমগ্র জাতি আজ এক শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থায় নিপতিত হয়ে পড়েছে।

মির্জা ফখরুলের নিন্দা : লালমাটিয়ায় প্রকাশনা সংস্থা শুদ্ধস্বরের কার্যালয়ে ঢুকে তিনজনকে কুপিয়ে গুরুতর আহত করা এবং শাহবাগের আজিজ সুপার মার্কেটে জাগৃতি প্রকাশনীর মালিক ফয়সাল আরেফিন দীপনকে কুপিয়ে হত্যার নিন্দা জানিয়েছেন বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।
গত রাতে এক বিবৃতিতে এ ধরনের হত্যাকে কাপুরুষোচিত উল্লেখ করে অবিলম্বে হামলাকারীদের গ্রেফতার ও আইনের আওতায় আনার দাবি জানান তিনি।

কর্নেল অলির নিন্দা : প্রকাশক দীপনকে হত্যা ও আহমেদুর রশীদ টুটুল, তারেক রহিম এবং রণদীপম বসুকে কুপিয়ে আহত করার ঘটনায় নিন্দা জানিয়েছেন এলডিপির প্রেসিডেন্ট ড. কর্নেল (অব:) অলি আহমদ বীর বিক্রম। এক বিবৃতিতে তিনি প্রতিটি হত্যার সাথে জড়িতদের গ্রেফতার ও শাস্তির দাবি জানান।

সানবিডি/ঢাকা/এসএস