বসতবাড়িতে রাসায়নিক মুক্ত ফসল উৎপাদন করেও সফলতা অর্জন

|| প্রকাশ: ২০১৫-১১-০৬ ১৫:০৩:৫১ || আপডেট: ২০১৫-১১-০৬ ১৫:০৩:৫১

JMS_AGR121বাংলাদেশ কৃষি প্রধান দেশ। এ দেশের দক্ষিন অঞ্চলের মানুষের প্রধান পেশা কৃষি ও মৎস্য। তবে উন্নত প্রযুক্তি ব্যবহারের ফলে মৎস্য ঘেরের পাড়ে সবজি চাষ করে আর্থিকভাবে লাভবান হচ্ছেন কৃষকরা। চলতি মৌসুমে সবজি চাষে প্রায় লক্ষাধিক টাকার বাড়তি আয় করেছেন তারা। মৎস্য ঘেরের পাড়ে সবজি চাষ করে লাভবান হওয়ায় বাড়তি লাভের আশায় সম্মিলিতভাবে চাষাবাদের দিকে ঝুকছেন কৃষকরা।

এমনই এক জন সফল কৃষক ওহিদুজ্জামান। উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সহায়তায় জৈব প্রযুক্তি ব্যবহার করে বাড়ির অঙ্গিনায় পুষ্টিকর শাক সবজি ও মৌসুমী ফল উৎপাদন করে সফলতার মুখ দেখেছেন তিনি। দেবহাটার পারুলিয়া গ্রামের ওহিদুজ্জামান রাসায়নিক সার ব্যবহার না করে বাড়িতে কম্পোস্ট সার উৎপাদন করে থাকে। পাশাপাশি ক্ষতিকর কীট নাশক ব্যবহার না করে জৈব বালাই নাশক ও জৈব পদ্ধতিতে ক্ষতিকর পোকা ও রোগ দমন করে থাকে। পটল, কুমড়া ও বেগুন জাতীয় সবজীতে সেক্স ফরমোন ফাঁদ ব্যবহার করে পোকা মাকড় দমন করে।

চলতি মৌসুমে আমে সেক্স ফরমোন ফাঁদ ব্যবহার করে রোগ ও দাগ মুক্ত আম উৎপাদন করতে সক্ষম হয়েছেন ওহিদুজ্জামান। সাথে সাথে বসত বাড়ীতে ছায়া যুক্ত স্থানে আদা, হলুদ জাতীয় ফসল উৎপাদন করছেন তিনি। এ বিষয়ে কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা শাশ্বতী ছন্দা দেবনাথ বলেন, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পরামর্শ অনুযায়ী বসত বাড়ীতে জৈব প্রযুক্তি ব্যবহার করে পুষ্টিকর ও স্বাস্থ্য সম্মত ফল, শাক সবজি তৈরি করে অনেকেই সফলতা অর্জন করেছেন। তেমনি মাছ চাষের সাথে সাথে ঘের ও পুকুরের পাড়ে লাউ, কুমড়া, বেগুন, করলা, কপিসহ বিভিন্ন প্রকার সবজি চাষ করেও বাড়তি আয় করা সম্ভব।

সানবিডি/ঢাকা/রাআ