প্যারিসে সন্ত্রাসী হামলায় নিহত ১৪০

|| প্রকাশ: ২০১৫-১১-১৪ ১০:২৩:৫৯ || আপডেট: ২০১৫-১১-১৪ ১৩:৫৬:৫৭

Parissফ্রান্সের রাজধানী প্যারিসে শুক্রবার রাতে বিচ্ছিন্ন বন্দুক ও বোমা হামলায় ১৪০ জনের বেশি মানুষ নিহত হয়েছে। এ ঘটনার পর দেশ জুড়ে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেছে ফরাসি সরকার।

তাৎক্ষণিকভাবে কোনো গোষ্ঠী এ হামলার দায় স্বীকার করেনি। তবে ফরাসি প্রেসিডেন্ট ফ্রাঁসোয়া ওঁলাদে একে অভূতপূর্ব সন্ত্রাসী হামলা বলে উল্লেখ করেছেন।

হামলার পর শুক্রবার মধ্যরাতে টেলিভিশনে জাতীর উদ্দেশে বক্তব্য রাখেন প্রেসিডেন্ট হঁলাদে। এসময় তিনি দেশ জুড়ে জরুরি অবস্থা জারি করেন। এছাড়া দেশের সকল সীমান্ত বন্ধ করারও ঘোষণা দেন। তিনি ওই হামলার জন্য পরোক্ষভাবে ইসলামি জঙ্গিদের দায়ী করে বলেছেন, ‘আমরা জানি এসব হামলা কারা করেছে। আমরা এ ধরনের ঘটনায় শঙ্কিত।’

হামলার পর গোটা দেশ জুড়ে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। কেবল প্যারিসেই মোতায়েন করা হয়েছে ১৫শ সেনা। এছাড়া প্যারিসের বাসিন্দাদের যার যার বাড়িতে অবস্থান করারও পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। পুলিশ সদস্যদের ছুটি বাতিল করে সত্ত্বর কাজে যোগদানেরও নির্দেশ দেয়া হয়েছে।

শুক্রবার রাতে প্যারিসের রেস্টুরেন্ট, বার এবং  কনসার্টসহ কমপক্ষে ছয়টি স্থানে বন্দুক ও বোমা হামলা চালায় সন্ত্রাসীরা। শহরের কেন্দ্রস্থলে অবস্থিত বাটাক্লঁ কনসার্ট হলেই কমপক্ষে একশ জন নিহত হওয়ার খবর পাওয়া গেছে। ওই কনসার্টে হামলার আগে শতাধিক মানুষকে জিম্মি করেছিল বন্দুকধারীরা। পরে পুলিশি অভিযানে জিম্মি নাটকের অবসান ঘটে।

অন্য হামলাগুলো হয়েছে স্তাদে দে ফ্রান্স এবং কয়েকটি বার ও রেস্তোরাঁয়। এর মধ্যে স্টেডিয়ামের কাছের ঘটনাটি আত্মঘাতি বোমা হামলা বলে ধারণা করা হচ্ছে। ওই স্টেডিয়ামে তখন জার্মানি বনাম ফ্রান্স ফুটবল ম্যাচ চলছিল, খেলা দেখতে গিয়েছিলেন খোদ প্রেসিডেন্ট।