অত্যাধুনিক প্রযুক্তিতে বিদ্যুৎ চুরি, ধরা পড়ল ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানে

|| প্রকাশ: ২০১৫-১১-১৫ ১৯:৪৭:৩২ || আপডেট: ২০১৫-১১-১৫ ১৯:৫০:৩৭

999অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে অভিনব কায়দায় শিল্পপ্রতিষ্ঠানে বিদ্যুৎ চুরি হাতে নাতে ধরেছে নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট মোঃ বদিউজ্জামান এর নেতৃত্বাধীন ভ্রাম্যমান আদালত। এ ঘটনা ঘটেছে রোববার দুপুরে খুলনার ফুলতলা উপজেলাধীন দামোদর গ্রামস্থ শুভ অটো রাইছ মিলে।

অভিযানকালে দেখা যায়, শুভ অটো রাইছ মিলের হিসাব নং এফ-৬ এর মিটার বক্সের দুটি সিলই টেম্পারিং করা। ৩টি ফেজের ভি-১ চালু থাকলেও অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে রিমোট কল্ট্রোল চালিয়ে ভি-২ এবং ভি-৩ বন্ধ রাখা হয়। ফলে শুধুমাত্র ভি-১ এর বিদ্যুৎ বিল হয়। কিন্তু সারাবছর পূর্ণভাবে মিল চালালেও বাকি দুই ফেজের কোন বিল আসেনা। ফলে একটি ফেজের মাসিক গড় আনুমানিক ১ লক্ষ টাকা করা হয়। এভাবে গত এক বছরে তিনটি ফেজের আনুমানিক বিল প্রতি মাসে ৩ লক্ষ টাকা হিসাবে প্রায় ৩৬ লক্ষ টাকা। ফলে বছরে ঐ মিল অন্ততঃ ২৪ লক্ষ টাকার বিদ্যুৎ চুরি করছে বলে স্থানীয় বিদ্যুৎ অফিসের অভিযোগ।

এদিকে ভ্রাম্যমান আদালতের অভিযানকালে মিল মালিক আনিছ মোল্লা পালিয়ে যান। তবে ম্যানেজার সুবোধ কুন্ডু (৫৫) অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মাধ্যমে বিদ্যুৎ চুরির অভিযোগ স্বীকার করায় তাৎক্ষনিকভাবে তাকে ৩০ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য ও আদায় করেন। এ ছাড়া মিলের মিটার রুম, গোডাউন, কারখানারুম সিলগালা এবং বৈদ্যুতিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এ ছাড়া মিল মালিকের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার ঘোষনা দেয়া হয়।

আদালত পরিচালনা কালে ওজোপাডিকো লিঃ এর তত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মোঃ আবু হাসান, আবাসিক প্রকৌশলী খান আবুল হাসান, থানার এসআই নজরুল ইসলাম, সহকারী প্রকৌশলী মোঃ আব্দুল মালেক, উপ-সহকারী প্রকৌশলী তোবারক আহম্মদ এবং জাকির হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

এছাড়া ভ্রাম্যমান আদালত বকেয়া বিলের কারণে বৈদ্যুতিক সংযোগ বিচ্ছিন্ন থাকা পথের বাজারস্থ নিপু দাসের লন্ড্রীর দোকানে অবৈধ সংযোগ প্রদান করায় হারুন শেখকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা ধার্য ও আদায় এবং তার মিটার ক্লোজ করা হয়। বিদ্যুৎ বিল বকেয়া থাকায় দামোদর গ্রামের আশিক ব্যাটারী কোং, জামিরা রোডস্থ আজিজুল হক সরদার, পিন্টু সরদারের এর বিদ্যুৎ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়।

সানবিডি/ঢাকা/রাআ/তাপস