ফুলতলার শিক্ষার বাতিঘর নূর মোহাম্মদ

|| প্রকাশ: ২০১৫-০৯-২৪ ১৯:২০:২১ || আপডেট: ২০১৫-০৯-২৪ ১৯:২৩:০৩

Nurখুলনার ফুলতলা উপজেলার জামিরা গ্রামের মৃত: আমির আলী শেখের পুত্র নূর মোহাম্মদ শেখ (৭৯) গ্রামে গ্রামে শিক্ষার আলো জ্বালাতে ছুটে বেড়ান এক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে অন্য শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে।

তিনি প্রাথমিক শিক্ষা শেষ করে আর্থ-সামাজিক ও পারিবারিক কারণে আর লেখা পড়া করতে না পারলেও থেমে থাকেনি পথ চলা। ব্যক্তি স্বার্থ ত্যাগ করে শিক্ষার আলো জ্বালাতে নিরলসভাবে ছুটে চলেছেন সকাল থেকে রাত পর্যন্ত শিক্ষার উন্নয়নের জন্য।

সবার কাছে নন্দিন সদালাপি সহজ সরল এ লোকটি এলাকার সাদা মনের মানুষ হিসাবে পরিচিতি লাভ করেছে। তিনি বর্তমানে ফুলতলার জামিরা বাজার আসমোতিয়া স্কুল এন্ড কলেজের পরিচালনা কমিটির সদস্য, জামিরা পশ্চিমপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অভিভাবক সভাপতি, জামিরা বাজার পিপরাইল সিদ্দিকিয়া ফাজিল মাদ্রাসার সদস্য।

এছাড়া তিনি অভয়নগর উপজেলার ভবদহ ডিগ্রী কলেজের সদস্য, দত্তগাতী মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সদস্য, টোলনা জেপিডিএস মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সদস্য ও চেচুড়ী কে বি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সদস্য পদে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এ ব্যাপারে জামিরা বাজার আসমোতিয়া স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ গাজী মারুফুল কবির বলেন, নূর মোহাম্মদ শেখ একজন প্রবীন ব্যক্তি হয়েও তিনি যে ভাবে এলাকায় শিক্ষা নিয়ে ভাবেন, অনেক শিক্ষিত লোক ওনার মতো ভাবে না। তিনি এই পৌড় বয়সেও শিক্ষার সেবা দিয়ে চলেছেন। সত্যি অবাক হওয়ার বিষয়।

ফুলতলা রিপোর্টার্স ক্লাব সভাপতি তাপস কুমার বিশ্বাস বলেন, আমাদের সমাজে অনেক লোক আছে যারা অন্যের সুখে নিজে সুখ খুজে পায়, নূর মোহাম্মদ তাদেরই একজন। সারাদিন তিনি শিক্ষক, ছাত্র-ছাত্রীদের সমস্যগুলি মনে প্রাণে শুনে সমাধান দেয়ার চেষ্টা করেন।

আজ পর্যন্ত বিদ্যাপিঠগুলোয় পরিচালনা পরিষদের কোন মিটিং হলে একটি দিনের জন্যও অনুপস্থিত হননি। ব্যক্তি জীবনে উদাসিন এই নূর মোহাম্মদ শেখের গুণাবলী লিখে শেষ করা যাবে না। তাই তার আদর্শে অনুপ্রাণীত হয়ে দেশে শত শত নূর মোহাম্মদ তৈরী হোক এটাই এলাকাবাসীর প্রত্যাশা।

সানবিডি/তাপস/এস