এমন হলে ক্রিকেটই ছেড়ে দেব: তামিম

প্রকাশ: ২০১৫-১১-২৩ ২০:৫৩:৫৬ আপডেট: ২০১৫-১১-২৩ ২০:৫৩:৫৬

2015_11_08_20_27_52_l8wMwUdTX8uyfuHRWFUQXLl72ZRW8V_originalবিপিএলে সোমবার নিজেদের দ্বিতীয় ম্যাচে প্রথম জয়ের দেখা পেয়েছে চিটাগং ভাইকিংস। রুদ্ধশ্বাস লড়াইয়ে এক রানে তারা হারিয়েছে সিলেট সুপার স্টার্সকে। প্রথম ম্যাচে হারের পর দ্বিতীয় ম্যাচে জয়, নিঃসন্দেহে স্বস্তির পরশ বুলিয়ে দিচ্ছে চিটাগং শিবিরে। তবে দলটির অধিনায়ক তামিম ইকবাল বেশ ক্ষুব্ধ ও হতাশ। সেটা সিলেট ফ্রাঞ্চাইজির কর্মকর্তাদের বাজে আচরণের কারণে। যাতে বেশ অপমানিত হয়েছেন তিনি। আর সে কারণেই তিনি বলেছেন, ‘ফ্রাঞ্চাইজি কর্মকর্তাদের কাছে এমন অপমানিত হতে থাকলে ক্রিকেটই ছেড়ে দেব’।

আসল ঘটনা আসলে ম্যাচের আগে। যেখানে ইংলিশ দুই ক্রিকেটার রবি বোপারা ও জশুয়া কবের ম্যাচে অংশগ্রহণ নিয়ে। প্রথমে তাদের দুজনের ছিল না এনওসি (অনাপত্তি পত্র)। এ ফাঁকে দলীয় খেলোয়াড় তালিকা নিয়ে টস করে ফেলেন মুশফিক। টসের পর দেখা গেলো এনওসি জমা দেয়া হলো বিসিবিতে। সিলেট সিদ্ধান্ত নিল দুই ইংলিশ ক্রিকেটার খেলাবে। কিন্তু বাদ সেধে বসলো চিটাগাং। তাদের যে তালিকা দেয়া হয়েছিল, সেখানে তো নেই জশুয়া কব আর রবি বোপারার নাম! এ নিয়ে সিলেট ফ্রাঞ্চাইজি কর্মকর্তাদের সঙ্গে উত্তপ্ত বাক্য বিনিময় হয় চিটাগং অধিনায়ক তামিম ইকবালের। তামিমের অভিযোগ, ঐ সময় সেই কর্মকর্তারা তাকে বাজে ভাষায় আক্রমণ করে। যা তাকে অপমানিত করেছে।

ম্যাচ শেষে সংবাদ সম্মেলনে এই প্রসঙ্গে উঠতেই তামিম বেশ হতাশ কণ্ঠে বলেন, ‘আমি একজন জাতীয় দলের ক্রিকেটার। সেখানে বিপিএলের মতো টুর্নামেন্টে কোন ফ্রাঞ্চাইজির কর্মকর্তারা আমার পরিবার নিয়ে কটুক্তি করবে, তা আমি মেনে নিতে পারি না। সেই সময় আমার সঙ্গে ভিক্ষুকের মতো আচরণ করা হয়েছে। এমন যদি ধারাবাহিকভাবে ঘটতে থাকে, তাহলে ক্রিকেটই ছেড়ে দেব’।

তিনি আরও বলেন, ‘একটা জিনিস আমি সবাইকে বলতে চাই, বিপিএলে জাতীয় দলের ক্রিকেটারদের সম্মান করা উচিত। বিপিএলের পয়সা আছে তার মানে এই না যে জাতীয় দলের একজন খেলোয়াড়কে ভিক্ষুকের মত ট্রিট করবে। বিপিএলর সম্মান প্রদর্শন করা উচিত। আমি এখানে খেলতে এসেছি। আমার মা-বাবা, আমার পরিবারের ব্যাপারে গালি শুনতে আসিনি।’

যিনি খারাপ ব্যবহার করেছেন, তার নাম বলতে চাননি অবশ্য তামিম, ‘আমি তার নাম বলতে চাই না। আমি ওই মানুষটার প্রতি যথেস্ট সম্মান দেখিয়ে তাকে ‘স্যার’ বলে সম্বোধন করেছিলাম। তাকে স্যার, স্যার, স্যার বলেও সম্মান করেছি। সে আমাকে বলেছিল দাঁড়িয়ে তার সঙ্গে কথা বলতে। আমি সেই কাজটিও করেছি। এরপর সে আমার পরিবার নিয়ে খুব বাজে মন্তব্য করে, যেটা খুব অপ্রীতিকর।’

তবে তামিমের বিশ্বাস বিষয়টি সুরাহা করবে বিসিবি। তার মতে, ‘আমি বিশ্বাস করি আমি বিসিবির একটা পার্ট। বিসিবির ডিসিপ্লিন কমিটি অবশ্যই এটা নিয়ে পদক্ষেপ নিবে। আমাদের কিভাবে সম্মান দিবে সেটা নিয়ে ভাববে। তারা যদি আমাদেরকে ভিক্ষুকের মত ট্রিট করা শুরু করে তাহলে আমাদের খেলা ছেড়ে দেওয়া উচিত।’

সানবিডি/ঢাকা/রাআ