হঠাৎ বেড়েছে গুঁড়ো দুধের দাম

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২০-০২-০৪ ১৫:১৪:৫৯ || আপডেট: ২০২০-০২-০৪ ১৫:১৫:২৭

দেশের বাজারে অস্বাভাবিক বেড়েছে গুঁড়ো দুধের দাম। গত এক মাসে দফায় দফায় দাম বাড়িয়েছে গুঁড়ো দুধের শীর্ষ বিপণনকারী কয়েকটি কোম্পানি। শীর্ষ কোম্পানিগুলোর কারণে অন্যান্য ব্র্যান্ডও গুঁড়ো দুধের দাম বাড়ানোর পরিকল্পনা করছে।

শীত মৌসুমে উৎপাদন কমে ইউরোপের বাজারে গুঁড়ো দুধের দাম বেড়ে যাওয়ায় দেশের বাজারেও এর প্রভাব পড়েছে বলে জানিয়েছে বিপণনকারী কোম্পানিগুলো। তবে বিশ্ববাজারে দাম কিছুটা বাড়লেও স্থানীয় পর্যায়ে লাগামহীন মূল্যবৃদ্ধিকে অযৌক্তিক বলছেন সংশ্লিষ্টরা।

আবুল খায়ের গ্রুপের মার্কস ব্র্যান্ডের গুঁড়ো দুধের দাম গত এক মাসে চারবার বাড়ানো হয়েছে। চার দফায় কেজিপ্রতি ২৮০ টাকা দাম বেড়েছে মার্কসের। গতকালও কোম্পানিটি একদিনে কেজিপ্রতি ২০ টাকা বাড়িয়েছে গুঁড়ো দুধের দাম।

মার্কস ব্র্যান্ডের চট্টগ্রামের এক বিপণন ব্যবস্থাপক নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান, কোম্পানির পক্ষ থেকে মূল্যবৃদ্ধির ঘোষণা আসায় খুচরা ক্রেতাদের কাছে বেশি দামেই গুঁড়ো দুধ বিক্রি করছেন তারা। সর্বশেষ গতকাল প্রতি কেজি গুঁড়ো দুধের দাম ২০ টাকা বাড়িয়েছে মার্কস। বিশ্ববাজারে মূল্যবৃদ্ধির কারণে কোম্পানির দুধের দাম বাড়ানো হচ্ছে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মেঘনা গ্রুপের সুপার পিওর গুঁড়ো দুধের দাম এক মাস আগেও প্রতি কেজি ৬৯০ টাকা ছিল। বর্তমানে তা ৮৪০ টাকায় বিক্রি করছে ডিলাররা। ডিলার পর্যায়ে মূল্যবৃদ্ধির কারণে খুচরা পর্যায়েও সমপরিমাণ দাম বেড়েছে পণ্যটির।

এছাড়া পারটেক্স গ্রুপের ড্যানিশ ব্র্যান্ডের গুেঁড়া দুধের দাম (গ্রীনল্যান্ড ব্র্যান্ড) কেজিপ্রতি ১৩০ টাকা বেড়ে ৮২০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। বাজারে অন্যান্য কয়েকটি কোম্পানি এখন পর্যন্ত দাম না বাড়ালেও চলতি মাসের মধ্যে দাম সমন্বয় করবে বলে জানিয়েছেন বিক্রয় প্রতিনিধিরা।

চট্টগ্রামে ডানো ব্র্যান্ডের সিনিয়র মার্কেটিং এক্সিকিউটিভ মো. সবুর আহমেদ বলেন, ডানো ব্র্যান্ডের গুঁড়ো দুধের দাম এখন পর্যন্ত বাড়েনি। আন্তর্জাতিক বুকিং দরের কারণে ডানো ব্র্যান্ডের দামও বাড়বে। তবে আগে আমদানি করা দুধ মজুদ থাকায় এবং বাজার ভারসাম্য ধরে রাখতে সীমিত আকারে দাম সমন্বয় করা হবে। আগামী সপ্তাহের মধ্যে নতুন দামে ডানো ব্র্যান্ডের গুঁড়ো দুধ বাজারে সরবরাহ হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

গুঁড়ো দুধ মোড়কজাতকারী কোম্পানিগুলোর সূত্রে জানা গেছে, শীত মৌসুমে দেশের বাজারে গুঁড়ো দুধের দাম কিছুটা বেশি থাকে। শীতে ইউরোপ অঞ্চলে বরফ জমে যাওয়ার কারণে গরুর দুধ উৎপাদন কমে। এ কারণে গুঁড়ো দুধ তৈরির কাঁচামালের সরবরাহ কিছুটা কমে যায়। ফলে রফতানিতে বুকিং বেড়ে যাওয়ার কারণে আমদানিনির্ভর দেশগুলোয় গুঁড়ো দুধের দাম বেড়ে যায়। কিন্তু এ বছর গুঁড়ো দুধের দাম অস্বাভাবিক হারে বাড়ানো হয়েছে। শীর্ষ কয়েকটি কোম্পানি দফায় দফায় দাম বাড়ানোর ফলে অন্যান্য কোম্পানিও দাম বাড়াতে বাধ্য হয়েছে বলে জানিয়েছেন খাতসংশ্লিষ্ট কয়েকজন।

চট্টগ্রামের কমার্স কলেজ রোডের মেসার্স খাজা গরিবে নেওয়াজ ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের স্বত্বাধিকারী মো. আবদুর রহিম বলেন, কয়েকটি কোম্পানি গুঁড়ো দুধের দাম বাড়িয়েছে। এর মধ্যে মার্কস সবচেয়ে বেশি দাম বাড়িয়ে বিক্রি করছে। কোম্পানিগুলো সবসময় মূল দামের সঙ্গে বড় কমিশন দিয়ে দাম নিয়ন্ত্রণে রাখতে চায়। সম্প্রতি দাম বাড়ানোর পাশাপাশি খুচরা পর্যায়ে দেয়া ছাড় তুলে নেয়ায় গুঁড়ো দুধের কেজিপ্রতি দাম কয়েকশ টাকা পর্যন্ত বেড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন তিনি। সূত্র: বণিক বার্তা
সানবিডি/ঢাকা/এসএস