৪ ফিলিস্তিনিকে হত্যা করেছে ইসরাইলি সেনাবাহিনী

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২০-০২-০৮ ১৬:৫৩:৩৮ || আপডেট: ২০২০-০২-০৮ ১৬:৫৩:৩৮

মার্কিন প্রেসিডেন্ট  ট্রাম্পের  কথিত শতাব্দীর সেরার ‘মধ্যপ্রাচ্য পরিকল্পনা’ ঘিরে ফিলিস্তিনিদের ওপর সহিংসতা বাড়িয়েছে অবৈধ রাষ্ট্র ইসরাইল। ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে ২৪ ঘণ্টায় চার ফিলিস্তিনিকে গুলি করে হত্যা করেছে দেশটির সেনাবাহিনী।

নিহতদের মধ্যে একজন কিশোর ও এক পুলিশ সদস্যও রয়েছেন। আহত হয়েছেন আরও কয়েক ডজন। বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার রাত পর্যন্ত বর্বর এ হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়। খবর আলজাজিরা ও রয়টার্সের।

গত সপ্তাহে ‘ডিল অব দ্য সেঞ্চুরি’ নামে ইসরাইল ঘেঁষা পরিকল্পনাটি প্রকাশ করেন ট্রাম্প। এ পরিকল্পনায় অধিকৃত অঞ্চলের ইহুদি বসতি বাদ দিয়ে এবং প্রায় পুরোপুরি ইসরাইলের নিয়ন্ত্রণের অধীনে একটি অসামরিক ফিলিস্তিন রাষ্ট্র গড়ার কথা বলা হয়েছে।

ফিলিস্তিনিরাসহ আরব লিগ এবং ওআইসি এরই মধ্যে পরিকল্পনাটি প্রত্যাখ্যান করেছে। ইসরাইলের প্রতি পক্ষপাতদুষ্টতার অভিযোগে ফিলিস্তিনিরা ট্রাম্প প্রশাসনকে পরিহার করে চলছে। ট্রাম্পের মধ্যপ্রাচ্য শান্তি পরিকল্পনাটি ফিলিস্তিনিদের দাবি এবং অধিকার মেটাতে সহায়ক নয় বলেই অভিযোগ তাদের।

পরিকল্পনা প্রকাশের পর গত কয়েকদিন থেকেই ইসরাইল-গাজা সীমান্ত পরিস্থিতি সহিংস হয়ে উঠেছে। গাজার কয়েকটি অবস্থানে ইসরাইল বিমান হামলাও চালিয়েছে। ফিলিস্তিনিরাও ইসরাইলে মর্টার ছুড়েছে।

ফিলিস্তিনের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের মুখপাত্র নাবিল আবু রুদেইনা এ চুক্তি উত্তেজনা এবং সহিংসতা বাড়াচ্ছে বলে অভিযোগ করেছেন। আলজাজিরা জানায়, বৃহস্পতিবার ফিলিস্তিনের পশ্চিম তীরে সেখানকার এক বাসিন্দার বাড়ি গুঁড়িয়ে দেয় ইসরাইলি বাহিনী।

এর প্রতিবাদে বিক্ষোভ শুরু হলে আন্দোলনকারীদের ওপর গুলি চালায় ইসরাইলি সেনারা। এতে দু’জন নিহত হন। নিহতদের মধ্যে একজন ১৯ বছর বয়সী শিক্ষার্থী ইয়াজান আবু তাবেক। অপরজন ফিলিস্তিনের পুলিশ সদস্য তারেক বাদোয়ান।

ইসরাইলি সামরিক বাহিনী দাবি করেছে, ফিলিস্তিনের সশস্ত্র সংগঠন হামাসের সঙ্গে সম্পৃক্ততার দায়ে আহমাদ ক্বানবা নামে এক ব্যক্তির ওই বাড়ি গুঁড়িয়ে দেয়া হয়েছে।

সানবিডি/এনজে