যুবকদের দক্ষ করতে জাতীয় দক্ষতা প্রতিযোগিতা শুরু

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০২০-০২-০৮ ২২:৪৯:০৬ || আপডেট: ২০২০-০২-০৮ ২২:৪৯:০৬

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের (পিএমও) আওতাধীন জাতীয় দক্ষতা উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (এনএসডিএ) দেশব্যাপী সকল স্তরে দেশের শ্রমশক্তির দক্ষতা অজন উৎসাহিত করতে জাতীয় দক্ষতা প্রতিযোগিতা শুরু করতে যাচ্ছে।

শনিবার (৮ ফেব্রুয়ারি, ২০২০) হোটেল রেনেসাঁয় একটি অনুষ্ঠানে এই প্রতিযোগিতাটি উদ্ভোদন করা হয়। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল প্রধান অতিথি হিসাবে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন । বিশেষ অতিথি হিসাবে প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারী শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান বক্তব্য রাখেন। এশীয় উন্নয়ন ব্যাংকের (এডিবি) কান্ট্রি ডিরেক্টর মনমোহন প্রকাশন সম্মানিত অতিথির বক্তব্য রাখেন এবং প্রধানমন্ত্রীর সচিব মোঃ তোফাজ্জেল হোসেন মিয়া অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন এবং সমাপনী বক্তব্য রাখেন। এনএসডিএর নির্বাহী চেয়ারম্যান মোঃ ফারুক হোসেন ধন্যবাদ প্রদান করেন ।

অনুষ্ঠানে মোঃ ফারুক হোসেন বলেন, এনএসডিএ প্রশিক্ষণ ও দক্ষতা মডিউল ডিজাইন, পরিকল্পনা ও অনুমোদনের মাধ্যমে দক্ষতা প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটগুলিকে নিয়ন্ত্রণ করে, দক্ষতার মান নির্ধারণ করে, বিভিন্ন কর্মকাণ্ডের মাধ্যমে জাতীয় স্তরের সচেতনতা সৃষ্টির মাধ্যমে দেশের জনবলের দক্ষতা বৃদ্ধি করছে। কেন্দ্রীয়, বিভাগীয়, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে এবং আন্তর্জাতিক অঙ্গনে ইভেন্ট, প্রোগ্রাম এবং প্রতিযোগিতায় অংশ নেওয়ার মাধ্যমে বাংলাদেশেকে আন্তরজাতিক মানে তুলে ধরে দেশের অরথনীতিতে বিরাট অবদান রাখছে ।
প্রতিযোগিতাটি তরুণ-তরুণীদের দক্ষতা বৃদ্ধি করার জন্য এবং বিদেশে ও বিদেশে উভয় ক্ষেত্রে চাকরির সন্ধানের জন্য আরও দক্ষ করার জন্য সুযোগ তৈরি করবে এবং আয় অর্জনে অবদান রাখবে এবং জাতীয় অর্থনীতিকে জোরদার করবে ।

পিতামাতারা তাদের সন্তানদের দক্ষতা প্রশিক্ষণের জন্য প্রায়শই প্রেরণ করতে ইচ্ছুক না কারণ তারা এর মূল্য বুঝতে পারে না। প্রশিক্ষণার্থীরা নিজেরাই প্রযুক্তিগত ও বৃত্তিমূলক প্রবাহে প্রশিক্ষণ পাওয়ার জন্য খুব কম আগ্রহী হয়েছিল কারণ তারা ভুলভাবে বুঝতে পেরেছিল যে এটি নিম্ন-অর্জনকারীদের জন্য একটি জায়গা। এটি দক্ষ কর্মী তৈরির লক্ষ্যে সরকারকে লক্ষ্য অর্জনে বাধা সৃষ্টি করে । পরবর্তী প্রজন্ম চাকরির বাজারে বড় চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি এবং এই মানসিকতার পরিবর্তন করা দরকার।

এটি বিবেচনা করে, এনএসডিএ বাংলাদেশে দক্ষতা প্রশিক্ষণ প্রচার ও জনপ্রিয়করণের জন্য এর কার্যক্রমের অংশ হিসাবে ‘বিভাগীয় এবং জাতীয় দক্ষতা প্রতিযোগিতা’ আয়োজন করে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শতবর্ষ উদযাপন করতে যাচ্ছে, জানান মোঃ ফারুক হোসেন।

তিনি আরও বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী ইতিমধ্যে দুই দফায় এই প্রতিযোগিতাটি আয়োজনের জন্য তার সম্মতি দিয়েছেন। প্রথম পর্যায়ে বিভাগীয় প্রতিযোগিতা ২০ (বিশ) ট্রেডে আটটি বিভাগীয় সদর দফতরে অনুষ্ঠিত হবে। বিজয়ীরা জাতীয় দক্ষতা প্রতিযোগিতায় অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া ‘বঙ্গবন্ধু দক্ষতা পুরষ্কার প্রতিযোগিতায় অংশ গ্রহন করবেন ।

ট্রেড সমূহ হলো: কংক্রিট নির্মাণ কাজ, কাঠমিস্ত্রি, বৈদ্যুতিক ইনস্টলেশন, নদীর গভীরতানির্ণয় এবং হিটিং, পেন্টিং এবং সজ্জিত, ওয়াল এবং ফ্লোর টাইলিং, ইট বিছানো, প্লাস্টারিং ও ড্রাই ওয়াল, হেয়ার ড্রেসিং, রান্না, বিউটি থেরাপি, বেকারি, প্যাটাসেরি এবং মিষ্টান্ন ও রেস্তোঁরা পরিষেবা, ফ্যাশন প্রযুক্তি, ফ্লোরস্ট্রি, গ্রাফিক ডিজাইন প্রযুক্তি, ওয়েব ডিজাইন ও বিকাশ, ব্যবসায়ের জন্য আইটি সফ্টওয়্যার সমাধান এবং ওয়েল্ডিং।