আমদানি-রফতানি গতিশীল করতে ভারতীয় ব্যবসায়ীদের সাথে বৈঠক

সান বিডি ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২০-০২-০৯ ১০:৫৫:২৫ || আপডেট: ২০২০-০২-০৯ ১০:৫৬:১৭

দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে ভারত-বাংলাদেশের মধ্যে পণ্য আমদানি-রফতানি কার্যক্রম আরো বাড়ানোর লক্ষ্যে দুই দেশের আমদানি-রফতানিকারক ও সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট ব্যবসায়ীদের মধ্যে এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের আহ্বানে শনিবার বিকাল সাড়ে ৪টা থেকে সাড়ে ৫টা পর্যন্ত হিলি সীমান্তের চেকপোস্ট গেটের শূন্যরেখার পাশে বিজিবির পোস্টসংলগ্ন এলাকায় এ বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। এর আগে ভারতীয় ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দল সীমান্তের শূন্যরেখায় এলে বাংলাদেশী ব্যবসায়ীদের পক্ষ থেকে তাদের শুভেচ্ছা জানানো হয়।

বৈঠকে ভারতের হিলি এক্সপোর্টার্স অ্যান্ড কাস্টমস ক্লিয়ারিং এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি আলাউদ্দিন মণ্ডল ও সাধারণ সম্পাদক সনজিত্ মজুমদারের নেতৃত্বে ভারতীয় ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলে উপস্থিত ছিলেন রফতানিকারক উত্তম কুমার, উদয় বিশ্বাস, অশোক কুমার, জয়ন্ত সরকার, দিনেশ অধিকারী, চন্দ্র প্রকাশ, কাজল সরকার। হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশীদ হারুনের নেতৃত্বে বাংলাদেশী ব্যবসায়ী প্রতিনিধি দলে উপস্থিত ছিলেন সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট অ্যাসোসিয়েশনের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আব্দুল আজিজ, সাধারণ সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, আব্দুর রহমান লিটন, হিলি স্থলবন্দরের জনসংযোগ কর্মকর্তা সোহরাব হোসেনসহ অনেকে।

এ বিষয়ে হিলি স্থলবন্দর আমদানি-রফতানিকারক গ্রুপের সভাপতি হারুন উর রশীদ হারুন বলেন, বন্দর দিয়ে আমদানি-রফতানি বাণিজ্য কার্যক্রম আরো গতিশীল করতে ভারত-বাংলাদেশের আমদানি-রফতানিকারক, সিঅ্যান্ডএফ এজেন্ট, বন্দর কর্তৃপক্ষ ও শ্রমিক নেতাদের নিয়ে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়েছে। বৈঠকে দুদেশের মধ্যে পণ্য আমদানি-রফতানি কার্যক্রম পরিচালনা করতে বিরাজমান সমস্যাগুলো নিয়ে আলোচনা ও সেগুলো চিহ্নিত করা হয়। বন্দর দিয়ে বেশি পরিমাণে পণ্য আমদানি-রফতানির উদ্দেশ্যে বন্দরের সড়কগুলো প্রশস্তকরণের বিষয় নিয়ে ও অন্যান্য বন্দর দিয়ে পাটবীজ আমদানি হলেও হিলি স্থলবন্দর দিয়ে বন্ধ থাকায় এটি চালুর বিষয়ে আলোচনা করা হয়। একই সঙ্গে বিরাজমান সমস্যাগুলো নিজ নিজ ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে নিজ নিজ দেশের সরকারের উচ্চ পর্যায়ে পত্র দিয়ে জানানোর উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়।

সানবিডি/এনজে