প্রত্যয়নের ক্ষমতায় শাহজাহান কেনো ?

প্রকাশ: ২০১৫-১১-২৮ ২২:০১:১৩ আপডেট: ২০১৫-১১-২৮ ২২:০২:৩২

bnp 1_92588_0আসন্ন পৌরসভা নির্বাচনে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির মেয়র প্রার্থীদের মনোনয়ন প্রত্যয়ন করবেন দলীয় প্রধানরা। কিন্তু এক্ষেত্রে ব্যতিক্রম সংসদের বাইরে থাকা বিএনপি। দলটিতে এই দায়িত্ব দেয়া হয়েছে যুগ্ম মহাসচিব মো. শাহজাহানকে।

নির্বাচন কমিশনের বেঁধে দেয়া সময়ের মধ্যে শনিবার নির্বাচন কমিশনে আওয়ামী লীগ, বিএনপি ও জাতীয় পার্টিসহ বেশ কয়েকটি রাজনৈতিক দল এ সংক্রান্ত চিঠি দেয়। তখনই বিষয়টি পরিষ্কার হয়। তবে বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়া প্রত্যয়নের ক্ষমতা নিজে না নিয়ে যুগ্ম মহাসচিবকে কেন দিলেন তা নিয়ে সৃষ্টি হয়েছে কৌতূহল। যদিও দলের মহাসচিবের অবর্তমানে যুগ্ম মহাসচিবরা সাংগঠনিক দায়িত্ব পালন করে থাকেন।

প্রসঙ্গত, এবারই প্রথম দলীয় প্রতীকে পৌরসভায় মেয়র নির্বাচন হবে। এতে মেয়র পদে প্রার্থীদের কে প্রত্যয়ন করবেন তা শনিবারের মধ্যে জানাতে রাজনৈতিক দলগুলোকে সময় বেঁধে দেয় নির্বাচন কমিশন।

সময়সীমার শেষ দিন শনিবার বিএনপিসহ অন্যান্য রাজনৈতিক দল প্রার্থী প্রত্যয়নের ক্ষমতাবান ব্যক্তির নাম ইসিকে আনুষ্ঠানিকভাবে জানালো।

নতুন বিধি অনুযায়ী, মেয়র পদে দল মনোনীত প্রার্থীদের প্রত্যয়ন করতে পারবেন সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক বা সমপর্যায়ের পদাধিকারী বা তাদের কাছ থেকে ক্ষমতাপ্রাপ্ত ব্যক্তি।

নোয়াখালী সদর আসনের সাবেক সংসদ সদস্য এবং সাবেক হুইপ শাহজাহানকে বিএনপি পুনর্গঠনে সমন্বয়কারীর দায়িত্বও দিয়েছেন দলীয় প্রধান খালেদা জিয়া।

নেতাকর্মীরা বলছেন, অন্য নেতাদের চেয়ে বেগম জিয়ার আস্থার জায়গায় থাকার কারণে মো. শাহজাহানকে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্বে দেখা যাচ্ছে।

এদিকে বিএনপির ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম বেশ কিছুদিন ধরে কারাগারে। যুগ্ম মহাসচিবদের মধ্যে রুহুল কবির রিজভী ও মিজানুর রহমান মিনু কারাগারে, আমানউল্লাহ আমান চিকিৎসার জন্য এবং সালাহ উদ্দিন আহমেদ গ্রেপ্তার হয়ে বিদেশে রয়েছেন। বরকতউল্লাহ বুলু বিভিন্ন মামলায় হুলিয়া নিয়ে অনেকটা আত্মগোপনে রয়েছেন। এছাড়া আইন পেশা নিয়ে ব্যস্ত আছেন আরেক যুগ্ম মহাসচিব ব্যারিস্টার মাহবুব উদ্দিন খোকন।

বিএনপির একজন সহ-দপ্তর সম্পাদক নাম জানান, “এ সিদ্ধান্ত নিয়ে অন্য কিছু মনে করার কারণ নেই। কারণ সাংগঠনিক কাজগুলো মূলত যুগ্ম মহাসচিবরাই করে থাকেন। এটা তো স্থায়ী কমিটির সদস্যরা করেন না। যারা মুক্ত অবস্থায় আছেন তাদের মধ্যে যাকে চেয়ারপারসন যোগ্য মনে করেছেন তাকে দায়িত্ব দিয়েছেন।”

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বিএনপি চেয়ারপারসনের কার্যালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, “অন্যান্য কারণের বাইরেও বিশ্বস্ততার কারণে ম্যাডাম (খালেদা জিয়া) শাহজাহান ভাইকে দায়িত্ব দিয়েছেন।”

প্রসঙ্গত, আগামী ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠেয় পৌরসভা নির্বাচনে অংশ নিতে ৩ ডিসেম্বর মনোনয়নপত্র জমার শেষ দিন।

সানবিডি/ঢাকা/রাআ