গণমাধ্যমের ভুল করার অবকাশ নেই: ইনু

আপডেট: ২০১৫-১০-১৩ ১৮:৪২:১১


RU_Inuজাসদের সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু বলেছেন, রাষ্ট্র নায়করা ও রাজনীতিবিদরা ভুল করতে পারেন। কিন্তু গণমাধ্যমের ভুল করার কোনো অবকাশ নেই।

তিনি বলেন, আমরা ভুল করলে সমাজ ও গণমাধ্যম তা শুধরে দেয়। রাজনৈতিক কর্মী হিসেবে আমি ভুল করতে পারি, কিন্তু গণমাধ্যমের কর্মী হিসেবে আপনার ভুল করার কোনো অধিকার নেই।

মঙ্গলবার (১৩ অক্টোবর) রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) সিনেট ভবনে দিনব্যাপী আয়োজিত ‘জাতীয় উন্নয়নে আঞ্চলিক সাংবাদিকতা: সমস্যা ও সম্ভাবনা’ শীর্ষক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগিতায় বাংলাদেশ প্রেস ইনস্টিটিউট এ সেমিনারের আয়োজন করে।

ইনু বলেন, গণমাধ্যমে সংবাদ ব্যালেন্স করার প্রবণতা লক্ষ্য করা যায়। গণমাধ্যমের দায়িত্ব ব্যালেন্স করা নয়। গণমাধ্যম বস্তুনিষ্ঠ হবে। নিরপেক্ষতার নামে মাঝপথে হাঁটা যাবে না।

তিনি বলেন, দেশ যখন সংকটে পড়ে তখন একজন সাংবাদিক নিরপেক্ষ হতে পারেন না। অবশ্যই তাকে ভালো অথবা মন্দের যেকোনো একটি বেছে নিতে হবে। খণ্ডিত তথ্য, তথ্য চাপা দেওয়া ও অপসাংবাদিকতার ঝোঁক থেকে গণমাধ্যমের পবিত্রতা রক্ষা করার দায়িত্ব গণমাধ্যমকর্মীদের। এটি তাদের একার দায়িত্ব নয়, রাষ্ট্র, সমাজ, সরকার যৌথভাবে তথ্য সন্ত্রাসের ছাপ ও হলুদ সাংবাদিকতা থেকে গণতন্ত্রকে রক্ষা করবে।

তিনি আরো বলেন, আপনি বস্তুনিষ্ঠ হবেন, সরকারের ভুল-ত্রুটির ব্যাপারে সমালোচনামুখর হবেন। কিন্তু রাজাকার আর মুক্তিযোদ্ধাকে এক পাল্লায় মেপে সমাজে রাজাকারদের প্রতিষ্ঠায় লিপ্ত হবেন না।

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন রাবির গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সভাপতি ড. প্রদীপ কুমার পাণ্ডে।

মূল প্রবন্ধের উপর আলোচনা করেন পিআইবির সাবেক মহাপরিচালক ও রাবির সাংবাদিকতা বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক দুলাল চন্দ্র বিশ্বাস, সহযোগী অধ্যাপক মশিহুর রহমান, স্থানীয় দৈনিক সোনালী সংবাদের সম্পাদক লিয়াকত আলী ও সোনার দেশের ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক আকবারুল হাসান মিল্লাত এবং রাজশাহী সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কাজী শাহেদ।

সেমিনারে রাজশাহী বিভাগীয় ও জেলা পর্যায়ের গণমাধ্যমকর্মী, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের প্রায় আড়াই শতাধিক শিক্ষক-শিক্ষার্থী অংশ নেন।

সেমিনারের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন রাবির  উপাচার্য প্রফেসর মুহম্মদ মিজানউদ্দিন ও বিশেষ অতিথি ছিলেন, উপউপাচার্য প্রফেসর সারওয়ার জাহান।

অনুষ্ঠানে শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, পিআইবির মহাপরিচালক শাহ আলমগীর। অনুষ্ঠানের সঞ্চালনায় ছিলেন গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের সহকারী অধ্যাপক শাতিল সিরাজ।

অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ প্রফেসর সায়েন উদ্দিন আহমেদ, রেজিস্ট্রার প্রফেসর মুহাম্মদ এন্তাজুল হক, ছাত্র-উপদেষ্টা প্রফেসর ছাদেকুল আরেফিন, প্রক্টর প্রফেসর তারিকুল হাসান, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক প্রফেসর  ইলিয়াছ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

সানবিডি/ঢাকা/হৃদয়/এসএস

Print Print