দুই মাসের মধ্যে ডলারের মূল্য স্থিতিশীল হবে

নিজস্ব প্রতিবেদক || প্রকাশ: ২০২২-০৮-০৪ ১৯:৫৬:৪৩ || আপডেট: ২০২২-০৮-০৪ ১৯:৫৭:৫২

দেশের আমদানি কমে আসার প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। মার্কিন ডলারের ব্যবহার রয়েছে- এমন অন্যান্য সূচকেও এর চাহিদা কমে আসবে এমন ইঙ্গিত মিলছে। এই সুবাদে আগামী দুই মাসের মধ্যে দেশের মুদ্রাবাজারে ডলারের মূল্য স্থিতিশীল হবে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশ ব্যাংকের গভর্নর আব্দুর রউফ তালুকদার।

বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) কেন্দ্রীয় ব্যাংকের সম্মেলন কক্ষে সাংবাদিকদের সাথে মতবিনিময় সভায় তিনি একথা বলেন।

এসময় গভর্নর বলেন, মুদ্রাবাজার স্থিতিশীল হয়ে আসলে তখন বাজার মূল্যের ভিত্তিতে আন্তঃব্যাংক পর্যায়ে ডলারের বিনিময় হার নির্ধারিত হবে। বর্তমানে আন্তঃব্যাংক লেনদেন নির্ধারণে বাংলাদেশ ব্যাংক হস্তক্ষেপ করছে।

এ ছাড়া, ব্যাংকিং খাতে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় অপেক্ষাকৃত দুর্বল দশটি ব্যাংককে চিহ্নিত করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক।

তিনি বলেন, চারটি বিষয়ের ভিত্তি করে এ রেটিং নির্ণয় করা হয়। তাদের শ্রেণিকৃত ঋণ, মূলধন পর্যাপ্ততা, ঋণ-আমানত অনুপাত এবং প্রভিশনিং এর পরিমাণকে বিবেচনায় নেওয়া হয়।

তবে ব্যাংকগুলির নামপ্রকাশ করেননি গভর্নর।

আব্দুর রউফ জানান, আমাদের লক্ষ্য ব্যাংকগুলোকে এ রেটিংসের মাধ্যমে সাবলীল করে তোলা। কারণ একটা ব্যাংক খারাপ করলে, তার প্রভাব আরেকটা ব্যাংকের ওপর পড়ে।

তিনি বলেন, ঋণ ব্যবস্থাপনায় ব্যাংকগুলির সিদ্ধান্তের বাস্তবায়ন সংক্রান্ত বিষয়ে- স্বচ্ছতা আর জবাবদিহিতা নিশ্চিতকরণের জন্য ঋণ পুনঃতফসিলিকরণ ও পুনর্গঠন সংক্রান্ত মাস্টার সার্কুলার জারি করেছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক। গতকালও সেই সার্কুলার পুনরায় কিছুটা স্পষ্ট করা হয়েছে। কয়টি কিস্তি পরিশোধে ব্যর্থ হলে খেলাপি হবে, তাও নির্ধারণ করা হয়েছে।

গভর্নর বলেন, চিহ্নিত দুর্বল ব্যাংকগুলির সমস্যা সমাধানে বাংলাদেশ ব্যাংক তাদের সাথে ‘ওয়ান-টু-ওয়ান’ ভিত্তিতে আলোচনা শুরু করছে। এক্ষেত্রে ব্যাংকগুলি একটি ৩ বছর মেয়াদি ব্যবসায়ীক পরিকল্পনা জমা দেবে, যার অগ্রগতি বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা পর্যবেক্ষণ করবেন।

এএ