বিস্ময় বালক!

|| প্রকাশ: ২০১৫-১১-০৬ ১৪:০৯:১৬ || আপডেট: ২০১৫-১১-০৬ ১৪:২৩:৪৬

capture_89672সাইবার দুনিয়ায় অনেকের নামই আজ শোনা যায়। তবে বেশ কিছু দিন ধরে নয় বছর বয়সী এক বালকের মেধা-দক্ষতা সবাইকে যেন তাক লাগিয়ে দিয়েছে।

ভারতীয় বংশোদ্ভূত যুক্তরাষ্ট্রের টেক্সাসে বসবাসরত এই বালককে নিয়ে সাইবার দুনিয়া জুড়ে রীতিমতো হৈ-চৈ পড়ে গেছে।

টেক্সাসের অস্টিন শহরের এই বাসিন্দার নাম রুবেন। পড়ে তৃতীয় শ্রেণিতে। বেশ কিছু ‍দিন ধরে এই বালকটির নাম যথেষ্ট শ্রদ্ধার সঙ্গে উচ্চারণ করা হয়।তাকে বেশ সমীহ করা হয়।

সাইবার জগতে তার পরিচয় শুধু ওস্তাদ হ্যাকার হিসাবেই নয়, অ্যাপ ডেভেলপার, সাইবার সিকিউরিটি এক্সপার্ট-এর পাশাপাশি প্রুডেন্ট গেমস সংস্থার সিইও পদটিও এখন রুবেনেরই দখলে।

এছাড়া, হ্যাকার সমাজে সুবক্তা হিসাবেও সে সমাদৃত। যদিও ডায়াসে বক্তৃতা দেওয়ার সময় চেয়ারের উপর উঠে দাঁড়াতে হয় তাকে।

২০১৪ সালের ১৪ নভেম্বর শিশু দিবসে তার ভাষণ শুনে মুগ্ধ হয়েছিল সাইবার দুনিয়া। এ বছর দিল্লিতে হ্যাকারদের সবচেয়ে বড় সম্মেলনে ‘গ্রাউন্ড জিরো সামিট ২০১৫’-তে স্পেশ্যাল অ্যাম্বাস্যাডর হিসাবে সে নিমন্ত্রিত। মহাসভায় আলোচনার মুখ্য বিষয় সাইবার নিরাপত্তা। উপস্থিত থাকছেন বিশ্বের তাবড় সাইবার বিশেষজ্ঞ, গবেষক, এবং হ্যাকাররা।

বুধবার দিল্লির অশোক হোটেলে সভার উদ্বোধনে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিং। সোশ্যাল মিডিয়ায় ইদানীং মৌলবাদীদের রমরমা। তাদের থামাতে সাইবার বিশেষজ্ঞদের সাহায্য চান তিনি।

টাইমস অফ ইন্ডিয়ার সঙ্গে সাক্ষাত্‍কারে সম্মেলনের কনিষ্ঠতম অতিথি রুবেন পাল জানায়, ক্রেডেনশিয়াল হার্ভেস্টিং অর্থাত্‍ পাসওয়ার্ড চুরি করা দিয়েই হ্যাকার জগতে তার হাতেখড়ি। তার স্বপ্নের মানুষ স্পাইডারম্যানের সংলাপ অনুকরণ করে রুবেন জানায়, ‘হ্যাকিংয়ে চৌখস হয়ে উঠলে তোমার হাতে ক্ষমতা আসবে আর তার সঙ্গেই আসবে বিরাট দায়িত্ব।’ পৃথিবীর মঙ্গল সাধনায় ভালো সাইবার গুপ্তচর হয়ে ওঠাই তার লক্ষ্য।

সম্মেলনের আয়োজক সংস্থা ইন্ডিয়ান ইনফোসেক কনসর্টিয়াম-এর সিইও জিতেন জৈন জানান, দেশের নিরাপত্তার স্বার্থে সমস্ত হ্যাকার ও সাইবার বিশেষজ্ঞদের এক ছাতার তলায় আনতেই এই মহাসভার আয়োজন করা হয়েছে।

সানবিডি/ঢাকা/রাআ