এবার পানির ওপর তৈরি হচ্ছে পুরো শহর

আন্তর্জাতিক ডেস্ক || প্রকাশ: ২০২০-০২-১২ ১৭:১১:২২ || আপডেট: ২০২০-০২-১২ ১৭:৩২:১১

সারাবিশ্বে জনসংখ্যা বাড়ছে  হু হু করে। বন-জঙ্গল কেটে  তৈরি করা হচ্ছে বাসস্থান। বিশ্ব উষ্ণায়ন বা জলবায়ু পরিবর্তন নিয়ে চিন্তিত আবহাওয়াবিদরা। তাহলে ভবিষ্যত কি? এবার প্রকাশ্যে এল সেই নকশা, যেখানে ভাসবে একটা আস্ত শহর। মানে পুরো শহরটাই তৈরি হয়ে পানির ওপর।

এই প্রক্রিয়ার জন্য ইতোমধ্যেই তৈরি হয়ে গিয়েছে ব্লু-প্রিন্ট। কয়েক বছর বাদেই বাস্তবে দেখা মিলবে সেই শহর। যুক্তরাজ্যের হাত ধরে তৈরি হচ্ছে সেই প্রজেক্ট। উষ্ণায়নের ফলে সমুদ্রের পানিস্তর বেড়ে গেলে যেসব অঞ্চলে বিপদ আসতে পারে, সেসব অঞ্চলের কথা ভেবেই এই শহর তৈরি করা হচ্ছে।

এখানে সি-বেডের ওপর তৈরি হবে ঘর। এক একটি নির্দিষ্ট অঞ্চলে ১০,০০০ মানুষ বসবাস করতে পারবেন। থাকবে বাজার, পার্ক ইত্যাদিও। আগেই এই পরিকল্পনার কথা প্রকাশ্যে এসেছিল। তবে এবার নির্দিষ্ট সময়সীমা দেয়া হল। ১০ বছরের মধ্যেই তৈরি হবে এই শহর।

এই প্রজেক্টের  সাথে জড়িত এক কর্মকর্তা বলেছেন, শুনতে অদ্ভুত লাগলেও, সব কিছু ঠিক থাকলে একেবারে আসল শহরের মতই হবে এই শহর।

উষ্ণায়নের ফলে যেভাবে বরফ গলছে, তাতে বিশ্বের সব বড় শহরের ৯০ শতাংশ পর্যন্ত জের তলায় চলে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। তাই এই পরিকল্পনা। Oceanix নামে এক বেসরকারি সংস্থা এই প্রজেক্ট তৈরি করছে।

স্থলভাগ থেকে এক কিলোমিটার দূরেই তৈরি হবে এই শহর, যাতে সমুদ্র অশান্ত হলে বাসিন্দাদের সরিয়ে আনা যায়। তবে সুনামি কিংবা হ্যারিকেনেও যাতে এই শহরে কোনও আঁচ না পড়ে তার জন্য ম্যাসাচুসেটস বিশ্ববিদ্যালয়ের ‘ওসান ইঞ্জিনিয়ারিং’-বিভাগের সঙ্গে আলোচনাও চলছে।

অদ্ভুত এই শহরে উৎপাদন হবে শস্যও। যাতে বাইরে থেকে খাবার কেনার দরকার না পড়ে।

সানবিডি/এনজে